মাধবপুরে ড্রেজারের কারণে বিলীন হচ্ছে কোটি টাকার স্লুইসগেট

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলা আন্দিউড়া ইউনিয়নে জোয়ালভাঙ্গা মৌজার সরকারী চরে একাধিক ড্রেজার মেশিন স্থাপনের ফলে বিলীন হতে যাচ্ছে কোটি টাকার স্লুইসগেট।

শ্রমিকদের কাছ থেকে করোনা সংক্রমনের ঝুঁকিও বাড়ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার জোয়ালভাঙ্গা মৌজার সরকারী চর থেকে শক্তিশালী একাধিক ড্রেজার মেশিন স্থাপন করেছে স্থানীয় লোকজন। স্লুইসগেট গেটের ১০/১৫ মিটার দুরত্বে মেশিনগুলো স্থাপন করা হয়েছে। মাটি কেটে ২৫/৩০ ফুট গভীর গর্ত করার ফলে একদিকে নদীর গতিপথ পরিবর্তন অন্যদিকে স্লুইসগেট বিলীন হওয়ার শংকা দেখা দিয়েছে। স্লুইসগেট বিলীন হলে কয়েক হাজার আবাদী জমি নষ্ট হয়ে যাবে। এলাকার কৃষকরা ড্রেজার মালিকদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছেন।

এসব ড্রেজারে শ্রমিক হিসেবে কাজ করছে করোনার রেড জোন খ্যাত মুন্সীগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর ও ভৈরবের শতাধিক শ্রমিক। তারা এই করোনার মধ্যে সপ্তাহে ২/৩ বার তাদের বাড়ি আসা যাওয়া করে। তারা মাধবপুর সদর থেকে প্রতিদিন ডিজেল ও খাদ্য সামগ্রী ক্রয় করে। এতে করে পৌরসভাসহ আশে পাশের এলাকার মানুষ করোনা ঝুঁকিতে রয়েছে।একদিকে করোনার সংক্রমনের ঝুঁকি অন্যদিকে সীমানা লংঘন করে অবৈধভাবে সরকারী চর থেকে বালু উত্তোলন করছে।

এলাকাবাসী জানান, শক্তিশালী ড্রেজার দিয়ে মাটি খননের ফলে বর্তমানে বোয়ালিয়া নদীর গতিপথ পরিবর্তনের সম্ভাবনা রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ হবে কয়েক হাজার হেক্টর জমি।

এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আয়েশা আক্তার এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সরকারী জায়গা থেকে বালু উত্তোলন করলে প্রয়োজনীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।