ফ্রন্টলাইনের যোদ্ধাদের জন্য ইফতার

স্টাফ রিপোর্ট ।। করোনা সংকট মোকাবেলায় দায়িত্বরত ফ্রন্টলাইনের যোদ্ধাদের সম্মানে প্রস্তুতকৃত ইফতার উপহার দিয়েছে হেল্প ইন নিড সিলেট (এইচএনএস)। বুধবার দুপুরের পর থেকে ইফতারের পূর্ব পর্যন্ত সংস্থার স্বেচ্ছাসেবকরা নিজেরা সরাসরি গিয়ে ইফতারের প্যাকেট উপহার তুলে দেন। সিলেট মহানগর পুলিশের আওতাধীন কোতোয়ালি মডেল থানা, দক্ষিণ সুরমা থানা, শাহপরাণ (রহ.) থানা, জালালাবাদ থানা, মোগলাবাজার থানা, এয়ারপোর্ট থানা, শাহজালাল (রহ.) তদন্ত কেন্দ্র, বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ি, ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স, সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ মেডিকেলের স্টাফ ও সকল রোগীসহ বিভিন্ন স্থানে দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারি বাহিনীর সদস্যদের হাতে প্যাকেটজাত ইফতার উপহার দেয়া হয়।
নিজেদের আয়োজন সম্পর্কে এইচএনএস’র সমন্বয়কারী ও স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ বলেন, ‘চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশে দায়িত্বশীল ভাই-বোনেরা নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেশের কল্যাণে, মানুষের কল্যাণে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তারাই আমাদের এবং দেশের প্রকৃত বীর। তাদের সম্মান জানানোর লক্ষ্যে এইচএনএস’র এই ক্ষুদ্র উদ্যোগ।’
এছাড়া সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক ও সমাজকল্যাণমূলক এই সংস্থার উদ্যোগে বুধবার একইসাথে সিলেট শহরতলির গোয়াবাড়ি ও বড়শলা এলাকায় দু’টি শিশু মাদরাসা এবং অসহায় পথচারীদের মধ্যে ইফতার সামগ্রী উপহার হিসেবে দেয়া হয়।
এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে বড়বাজারে সংগঠনের কার্যালয় পরিদর্শন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, উত্তরপূর্ব পত্রিকার সম্পাদক প্রকাশক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, সিটি কাউন্সিলর ও সাংবাদিক রেজওয়ান আহমদ, সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাহাত তরফদার, পুলিশ সদস্য সফি আহমেদ।
প্রসঙ্গত, হেল্প ইন নিড সিলেট বা এইচএনএস কোভিড-১৯ ক্রাইসিসের সময় গত এপ্রিল মাসে জন্ম নেয়া একটি সেবামূলক সংস্থা। যুক্তরাজ্যে বসবাসরত কয়েকজন প্রবাসী বাংলাদেশী নাগরিক লকডাউনের সময় বাংলাদেশের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর ইচ্ছে পোষণ করেন। এরপর সবার মতামতের ভিত্তিতে জন্ম নেয় এইচএনএস। বিগত প্রায় দুই মাস ধরে সংগঠনটির উদ্যোগে সিলেটের অন্তত ১ হাজার পরিবারের হাতে নিরবে-নিভৃত খাদ্যসামগ্রী উপহার হিসেবে পৌঁছে দিয়েছে সংগঠনটি। আগামীতেও এরকম উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।