এনামুল হক সর্দারের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা

স্টাফ রিপোর্ট :: অধ্যক্ষ ড. এনামুল হক সর্দারের বিরুদ্ধে বিশ্বাসভঙ্গ ও প্রতারণার মামলা দায়ের করা হয়েছে। গার্ডেন টাওয়ারের বকেয়া ভাড়া পরিশোধ না করায় মঙ্গলবার সিলেটের অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা (সি আর মামলা নম্বর-৯৮৯) দায়ের করেন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান দি ম্যান এন্ড কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সাবেক সভাপতি ফারুক আহমদ মিছবাহ।

সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালে একটি প্রাইভেট কলেজ প্রতিষ্ঠার জন্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান দি ম্যান এন্ড কোম্পানী লিমিটেডের কাছ থেকে গার্ডেন টাওয়ারের ৫নং ব্লকের একটি ফ্লোর ভাড়া নেন এনামুল হক সর্দার। এরপর থেকে সেখানে ধাপে ধাপে এম এস ফাউন্ডেশনের নামে আরো ফ্লোর ভাড়া নেন। কিন্তু সময়ে সময়ে ভাড়া পরিশোধ না করায় গার্ডেন টাওয়ার কর্তৃপক্ষ তাঁকে তাগাদা দেন। তবুও ভাড়া পরিশোধ না করায় ৭৫ লাখ ৭৭ হাজার ৪২০ টাকা বকেয়া রয়ে যায়। বারবার চুক্তি করেও টাকা পরিশোধ না করে কালক্ষেপণ করায় গত ২ অক্টোবর কোতোয়ালি মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরী (নম্বর-১১০) দায়ের করেন দ্য ম্যান এন্ড কোম্পানীর ব্যবস্থাপক এস এম ইকবাল হোসেন পীর। সর্বশেষ গত রোববার সকাল সাড়ে ১০ টায় নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যক্তিরা ড. এনামুল হক সর্দারের প্রতিষ্ঠানে গিয়ে তাকে পাওনা ভাড়া পরিশোধের অনুরোধ করলে তা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেন আসামিরা। ফলে নিরুপায় হয়ে মামলার সিদ্ধান্ত নেয় দ্য ম্যান এন্ড কোম্পানী লিমিটেড কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফারুক আহমদ মিছবাহ বাদী হয়ে অধ্যক্ষ ড. এনামুল হক সর্দারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন। মিছবাহর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট সামিউল আলম ও অ্যাডভোকেট খিজির আহমদ। আদালত থেকে মামলাটি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মামলার আইনজীবী এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অধ্যক্ষ এনামুল হক সর্দারের বক্তব্যের জন্য তার মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।
উল্লেখ্য, অধ্যক্ষ ড. এনামুল হক সর্দার ২০১৬ সালে সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমানের বিরুদ্ধে ভোটযুদ্ধে পরাজিত হন এবং সর্বশেষ অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-২ আসনে সিংহ মার্কায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেও পরাজিত হন।

এএসআর/০০৭